মোট দেখেছে : 62
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

নামমাত্র মূল্যে চিকিৎসা সেবা

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় আলো ছড়াচ্ছে গোলাম-বানু হাসপাতাল। নামমাত্র মূল্যে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন গ্রামের সাধারণ মানুষ। জরুরি মুহূর্তে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য কাউকে ছুটতে হয় না জেলা সদরে। গর্ভবতী নারী ও শিশুদের চিকিৎসায় হাসপাতালটিতে রয়েছে আধুনিক ব্যবস্থা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলছেন, গ্রামীণ স্বাস্থ্যসেবায় অবদান রাখছে গোলাম-বানু হাসপাতাল।

 ২০১২ সালে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার নাগদা গ্রামে ১০ শয্যা বিশিষ্ট গোলাম-বানু হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা শামসুল আলম জোয়ার্দ্দার। হাসপাতালটিতে ৫ শয্যা করে দুটি নারী ও পুরুষ ওয়ার্ড রয়েছে। রয়েছে ইসিজি, প্যাথলজি, আল্ট্রাসনোগ্রাফি ও অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার। ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে জরুরি বিভাগ। চিকিৎসা সেবায় রয়েছেন চিকিৎসক, নার্স, প্রশিক্ষিত ধাত্রী ও আয়া। নামমাত্র টাকায় স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ায় খুশি এলাকার মানুষ।

নিয়মিত চিকিৎসা কার্যক্রমের পাশাপাশি মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করতে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প করা হয় বলে জানালেন হাসপাতালের চিকিৎসক।

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার গোলাম-বানু হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. আবু সালে মোহা. ইমরান বলেন, মাঝে মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প হয়। এখানে মূলত মা ও শিশুদের নিয়ে কাজ করা হয় এবং তা খুবই অল্প মূল্যে।

তৃণমূলের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে গোলাম-বানু হাসপাতালের কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটন আলী বলেন, স্বল্প মূল্যে চিকিৎসা দেয়ার এ উদ্যোগ খুব মহৎ। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।

আলমডাঙ্গা উপজেলার নাগদাসহ আশপাশের ২০টি গ্রামের মানুষ এ হাসপাতালে নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবা নিচ্ছেন।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ