মোট দেখেছে : 58
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

হামরা মানববন্ধন করার জন্য আসছি বাহে,ধরলা ভাঙ্গিয়া শেষ করি ফেলাইছে !

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: 


৮৫ বছরের বৃদ্ধা বালিয়া বেওয়া। বয়সের ভারে চলাফেরা করতে পারেন না। তবুও এসেছেন ধরলা তীরে। জানালেন, হামরা মানববন্ধন করার জন্য আসছি ব্যাহে। ধরলা ভাঙ্গিয়া শেষ করি ফেলাইছে। মোর বিয়া হবার ৬০ বছরে ধরলা হামার বাড়ীঘর ভাঙ্গছে ১০/১২ বার। শেষ বয়সে একনা শান্তি চাই। ধরলার ভাঙ্গন থাকি হামাক গুলাক বাঁচান। এ ভাবেই জানালেন বৃদ্ধা তার আকুতি। 



কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে শনিবার দুপুরে  ধরলা সমাজ কল্যাণ যুব সংঘের উদ্যেগে শতশত এলাকাবাসী ও শিক্ষক-শিক্ষার্থী মিলিত হয়ে উপজেলার ধরলার তীরবর্তি চর-গোরকমন্ডল আনন্দ বাজারের ঘেরুরঘাট থেকে নবিউলের ঘাট পর্যন্ত প্রায় আড়াই কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ধরলার ভয়াবহ ভাঙ্গন প্রতিরোধ ও স্থায়ী বাঁধ নির্মানের দাবীতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত পাঁচ বছরে ওই এলাকার তিন শতাধিক পরিবার ভাঙ্গনের শিকার হয়েছে। এছাড়াও স্থায়ী বেড়িবাঁধ না থাকায় প্রতিবছর শতশত ঘর-বাড়ী ও বিভিন্ন ফসলের ক্ষেত ডুবে যায়। নদীর বালু পড়ে নষ্ট হয় ফসলি জমি। এখনও ধরলার তীব্র ভাঙ্গন ঝুঁকিতে রয়েছে ৫০/৬০ টি পরিবার। তাই আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষের কাছে জরুরী ভিত্তিতে ভাঙ্গন প্রতিরোধ ও স্থায়ী বাঁধ নির্মানের দাবী জানাচ্ছি।


এসময় বক্তব্য রাখেন, ধরলা সমাজ কল্যাণ যুব সংঘের সভাপতি ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালেয়র শিক্ষার্থী আব্দুস ছালাম, সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক, সহকারী শিক্ষক রেদওয়ানুল আলম তাজ , স্থানীয় বাসিদা সফিকুল ইসলাম, ওবাইদুল হক, ইউপি সদস্য আয়াজ উদ্দিন, ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান,বেলাল হোসেন প্রমূখ।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ