মোট দেখেছে : 208
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

বোয়ালখালীতে মৃতের ভূয়া ওয়ারিশ সেজে প্রবাসী মন্ত্রণালয়ের টাকা হাতানোর চেষ্টার অভিযোগ

প্রভাষ চক্রবর্ত্তী :



বোয়ালখালীতে মৃতের ভূয়া ওয়ারিশ সেজে প্রবাসী মন্ত্রণালয়ের টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছেন কধুরখীলের ইউনিয়নের মোক্তার হোসেন টিপু নামের এক ব্যক্তি।গত বছরের ৮ ডিসেম্বর কধুরখীল ইউনিয়নের আবদুল

নবী মিস্ত্রি বাড়ির ওমান প্রবাসী মো.ইউছুপ মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রেখে যান।

ইউছুপের মৃত্যুর পরদিন পার্শ্ববর্তী বাড়ি আবদুল লতিফ মিস্ত্রির বাড়ির হাফিজুর রহমানের ছেলে টিপু (৩০) মৃত প্রবাসীর স্ত্রী জাহেদা বেগমের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা দিয়ে ইউছুপের পাসপোর্টটি কিনতে চান।

এতে ইউছুপের পরিবার প্রথমে অস্বীকৃতি জানালেও পরবর্তীতে তা ইউছুপ লোভ দেখিয়ে তা হাতিয়ে নেন।

এরপর টিপু আবেদন করেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ওয়েজ আর্নাস কল্যাণ বোর্ডে মৃত্যু পরবর্তী সরকার ঘোষিত ৩ লাখ টাকার মৃত্যু দাবি। তাতে তিনি নিজেকে মৃত প্রবাসী মো. ইউছুপ মিয়ার একমাত্র ওয়ারিশ

দাবি করেন এবং এতদ সংক্রান্ত সকল কাগজপত্র সংযুক্ত করেন।

চলতি বছরের গত ১৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ৩শ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে সর্বশেষ টাকা প্রাপ্তির ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর নিতে আসেন স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে।

তাতে চেয়ারম্যান সব কাগজপত্র যাচাই করতে গিয়ে সন্দেহ হলে স্বাক্ষর না করায় টিপু চেয়ারম্যান ও ইউএনও’র স্বাক্ষর জাল সই দিয়ে তার ব্যাংক স্টেটম্যান্টসহ প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জমা দেন।

তিন লাখ টাকা প্রাপ্তির চুড়ান্ত পর্যায়ে এসে ঘটে বিপত্তি। মৃতের বাড়ির ঠিকানা আবদুল ‘নবী’ মিস্ত্রি ও মৃতের একমাত্র ওয়ারিশ টিপুর বাড়ির ঠিকানা আবদুল ‘লতিফ’ মিস্ত্রি বাড়ি উল্লেখের কারণে।

বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের নজরে আসলে গত ১৮ সেপ্টেম্বর সরেজমিনে তদন্তে বেরিয়ে আসে ‘থলের বিড়াল’। স্থানীয়রা জানান, টিপু প্রবাসী মৃত ইউছুপের পুত্র কিংবা আত্মীয় স্বজন কেউ নন।

এ বিষয়ে মৃত প্রবাসীর একমাত্র ভূয়া ওয়ারিশ দাবি করায় টিপুর বিরুদ্ধে গত ১৭সেপ্টেম্বর বোয়ালখালী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন প্রবাসীর ছেলে মো. আসিফ।

অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. শরীফ উদ্দিন বলেন, মৃতের ওয়ারিশ সেজে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে মৃত প্রবাস

আরো দেখুন

আরও সংবাদ