মোট দেখেছে : 113
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

শেষ মুর্হুত্বে মন্ডপে মন্ডপে বেড়েছে ব্যস্ততা

বলরাম দাশ অনুপম, কক্সবাজার প্রতিনিধি:


হাতে-গোনা আর মাত্র কয়েকদিন বাকী। আগামী ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মাবম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। আর এই দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে মন্ডপে মন্ডপে বেড়েছে প্রতিমা তৈরির শেষ মুর্হুত্বের ব্যস্ততা। প্রতিমা শিল্পীর তুলির আঁচড়ে যেন প্রাণ সঞ্চারিত হচ্ছে মা দুর্গার। শেষ মুর্হুত্বে এসে প্রতিমা কারিগরদের যেন দম পেলার সময় নেই। এবার কক্সবাজার জেলায় প্রতিমা ও ঘট মিলে মোট ২৯৫ পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। করোনা মহামারির কারণে এবার ভিন্ন পরিবেশে উদ্যাপিত হবে সনাতন সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ এই ধর্মীয় উৎসব। করোনাকে মাথা রেখে পূজা উদ্যাপনের জন্য প্রস্তুতিও সম্পন্ন করা হয়েছে সংশ্লিষ্টদের পক্ষ থেকে। এদিকে শুক্রবার শহরের প্রতিমা তৈরির প্রধান স্থান সরস্বতী বাড়িসহ বেশ কয়েকটি পূজা মন্ডপ ঘুরে এবং সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে-শারদীয় দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে পুরোদমে প্রতিমা তৈরির কাজ চলছে। দিনরাতের বেশি সময় প্রতিমা শিল্পীরা কাজ করছেন। খড় আর কাঁচামাটি ও রংয়ের কাজ শেষে এখন নানা সাজসজ্জ্বায় দেবী দুর্গা, সরস্বতী, লহ্মী, কার্ত্তিক ও গণেশসহ সংশ্লিষ্ট সকল দেবতাদের বর্ণিল করে তোলার কাজ চলছে। প্রতিমা শিল্পীর রং-তুলির আঁচড়ে নানা বর্ণে সাজছেন দেবী দুর্গা। কক্সবাজার শহরের সরস্বতী বাড়ির প্রতিমা কারিগর মিল্টন ভট্টচার্য্য জানান- করোনা হলেও প্রতিমা তৈরি হয়েছে আগের মতই। তবে আগে যেরকম ভাবে বণার্ঢ্য ভাবে প্রতিমা তৈরি করা হত এবার তা হয়েছে ছোট আঙ্গিকে। করোনাকালীন হলেও দুর্গাপূজাকে সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরাপদ ভাবে সম্পন্নের লক্ষে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পূজা কমিটির পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে সকল ব্যবস্থা। ইতোমধ্যে পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার। কক্সবাজার জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট রনজিত দাশ ও সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা জানান-এবার করোনা মহামারির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই দুর্গাপূজা উদ্যাপন করা হবে। এজন্য নেতৃবৃন্দ জেলার সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন জানান-দুর্গাপূজা হচ্ছে বাঙ্গালী সংস্কৃতির একটু অংশ। কিন্তু এবার করোনার কারণে তা অনেকটাই পূজোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। তবে পূজোয় যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য-২২ অক্টোবর মহাষষ্ঠীর মধ্যে দিয়ে শুরু হয়ে ২৬ অক্টোবর মহা বিজয়া দশমীর মাধ্যমে শেষ হবে এবারের শারদীয় দুর্গাপূজা।

আরো দেখুন

আরও সংবাদ