মোট দেখেছে : 2,902
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নত করতে সরকার বদ্ধপরিকর : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীসহ সারাদেশে সুপেয় পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নত করতে সরকার বদ্ধপরিকর বলে জানিয়েছেন । তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আবারো ক্ষমতায় এলে, রাজধানীর সব বক্স কালভার্ট ভেঙ্গে, এলিভেটেড রুট নির্মাণ করা হবে। সকালে হোটেল সোনারগাঁও থেকে খিলগাঁওয়ে দাশেরকান্দি পয়ঃশোধনাগার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি। দেশের সার্বিক উন্নয়নে আগামী ২১'শো সালের ডেল্টা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের স্বপ্নের কথাও জানান প্রধানমন্ত্রী।রাজধানী ঢাকা। বিপুল সংখ্যক মানুষের এই নগরীতে সুপেয় পানির সংকট রয়েছে। সরবরাহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঢাকা পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ- ওয়াসার বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছে।


আধুনিক ও বাসযোগ্য রাজধানী গড়ে তুলতে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার আওতায় এবার নির্মাণ শুরু হলো আধুনিক পয়ঃশোধনাগারের। রাজধানীর খিলগাঁওয়ের দাশেরকান্দিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে ঢাকা ওয়াসা। রোববার হোটেল সোনারগাঁও থেকে এটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।চীনের সহায়তায় প্রকল্পটি ২০২০ নাগাদ বাস্তবায়িত হলে, গুলশান, বনানী, বারিধারাসহ রাজধানীর দক্ষিণ পূর্বাংশের পয়োবর্জ্য নিষ্কাসনের স্থায়ী সমাধান হবে। কর্তৃপক্ষ বলছে, এটি চালু হলে দৈনিক ৫০ কোটি লিটার পয়ঃবর্জ্য পরিশোধন সম্ভব হবে।

ভিত্তিফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন- সরকারের ধারাবাহিকতায় পানির সংকট এখন অনেকটাই লাঘব হয়েছে। আগামীতে রাজধানীর পাশাপাশি পানির সুব্যবস্থা থাকতে হবে প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত। বলেন, কাঙ্ক্ষিত অগ্রগতির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে ডেল্টা প্ল্যান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ঘোষণা দিয়েছি, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশের মধ্যে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে। আর ২০৪১ সাল নয়, ২১০০ সালের বাংলাদেশে কি হবে তা দেখতে চাই। আমরা ডেল্টা প্ল্যান নিয়েছি ২১০০ সাল পর্যন্ত। ডেল্টা প্ল্যানের মধ্যে যেটা আমি সুনির্দিষ্টভাবে নির্দেশ দিয়েছি, প্রত্যেকটি নদী ড্রেজিং করে, প্রতিটা এলাকাকে উন্নত করতে হবে। প্রতিটা জেলা-উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডসহ আমাদের সুপেয় পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এই তিনটির পদক্ষেপ নিতে হবে।’দেশের নদী ও খালগুলো দখলমুক্ত করে প্রবাহ ফিরিয়ে আনতে পারলে রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসন সম্ভব জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন- আগামীতে ক্ষমতায় এলে সব বক্সকালভার্ট ভেঙ্গে নির্মাণ করা হবে উড়াল সড়কের রুট।

তিনি বলেন, ‘আগামী ডিসেম্বরে নির্বাচন, যদি আসতে পারি, তাহলে সকল বক্স কালভার্ট ভেঙে দেব আমি।  আশা করি পর্যাপ্ত টাকা-পয়সা হবে আমাদের। আর ওই বক্স কালভার্ট এবং খালগুলো উন্মুক্ত করে দেব। খালগুলোর উপর দিয়ে এলিভেটেড রাস্তা বানিয়ে দেব।’

পরে, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে দাশেরকান্দি পয়ঃশোধনাগার প্রকল্পের মডেল পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।


( সৃষ্টি ডেস্ক/সি/নি)

আরো দেখুন

আরও সংবাদ