মোট দেখেছে : 196
প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টকে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

পবিত্র রমজান মাসে ফিলিস্তিনের আল-আকসা মসজিদে ইসরাইলি বর্বর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে এই হামলায় নিহতদের প্রতি শোক আর আহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। 

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে লেখা এক চিঠিতে সঙ্কটময় এই পরিস্থিতিতে ফিলিস্তিনের ভ্রাতৃপ্রতীম জনগণের পাশে থাকার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বুধবার জানানো হয়েছে, ইসরায়েলি হামলায় হতাহতের ঘটনায় শোক ও সমবেদনা জানিয়ে শেখ হাসিনা সম্প্রতি মাহমুদ আব্বাসকে এই চিঠি পাঠিয়েছেন।


মুসলিমদের তৃতীয় পবিত্র স্থান জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদ এই রমজানে সহিংসতার কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠেছে। জেরুজালেমে ইহুদি বসতি স্থাপন করা এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করা হতে পারে- আশঙ্কায় চলতি সপ্তাহের শুরুতে ফিলিস্তিনি তরুণদের সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনীর সংঘর্ষ শুরু হয়।ইসরায়েলের ‘জেরুজালেম দিবস’ কেন্দ্র করে উত্তেজনা চরমে পৌঁছে। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ফিলিস্তিনি স্থাপনা লক্ষ্য করে বিমান থেকে গোলা ছুড়ছে, অন্যদিকে ফিলিস্তিনি হামাস যোদ্ধারা রকেট হামলা করে পাল্টা জবাব দিচ্ছে।


দুই পক্ষের এই সংঘর্ষের ঘটনায় কয়েক ডজন মানুষ ইতোমধ্যে নিহত হয়েছেন, যার বেশিরভাগই ফিলিস্তিনি। এই সংঘাতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে।প্রধানমন্ত্রী চিঠিতে বলেন, “শেখ জারাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ এবং বেসামরিক জনগণকে দখলকৃত এলাকায় স্থানান্তরের মাধ্যমে ইসরায়েলি বাহিনীর মানবাধিকার, আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি লঙ্ঘনের চরম প্রকাশ; যা সারা বিশ্বের মানুষের অনুভূতিকে প্রবলভাবে নাড়া দিয়েছে।” 

শেখ হাসিনা স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে ১৯৬৭ সালে নির্ধারিত সীমা অনুযায়ী একটি স্বাধীন সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের অধিকার ওই ভূখণ্ডের জনগণের আছে।

ভ্রাতৃপ্রতীম ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “ফিলিস্তিনসহ পৃথিবীর যে কোনো স্থানে এমন ঘটনার ইতি টানতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি স্থায়ী পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।”



আরো দেখুন

আরও সংবাদ